|
NEWS FLASH:

অমিত -মমতার সফরে উত্তাপ বাড়ছে উত্তরে

অমিত -মমতার সফরে উত্তাপ বাড়ছে উত্তরে

আচমকা মুখ্যমন্ত্রীর প্রশাসনিক সভার স্থান বদল হল আলিপুরদুয়ারে৷ সোমবার উত্তরবঙ্গে সফরে যাচ্ছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ ২৭ এপ্রিল তাঁর হাসিমারার কাছে সুভাষিণী চা -বাগানের মাঠে ওই সভা করার কথা ছিল৷ কিন্ত্ত তৃণমূলের আলিপুরদুয়ার জেলা সভাপতি মোহন শর্মা শনিবার জানান , সভাটি হবে বীরপাড়ার সাকার্স ময়দানে৷ যা মাদারিহাট -বীরপাড়া বিধানসভা কেন্দ্র এলাকায় পড়ে৷ ওই কেন্দ্রটি বিজেপির দখলে৷ স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্বের কথায় স্পষ্ট , ওই এলাকায় বিজেপির প্রভাব ক্রমশ বাড়তে থাকায় মুখ্যমন্ত্রী নিজে ওই এলাকায় সভা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন৷ তাঁর চলতি সফরের মধ্যেই উত্তরবঙ্গে আসছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ৷ ২৫ এপ্রিল শিলিগুড়ি এলাকায় জনসম্পর্ক কর্মসূচিতে হাজির থাকবেন তিনি৷

অমিত শাহের এই সফর উত্তরবঙ্গের রাজনৈতিক জমি দখলের অভিযান বলে মনে করা হচ্ছে৷ সভাস্থল বদলে মমতাও নিজের জমি দখলে রাখার অভিযানে নেমে পড়লেন বলে মনে করছেন স্থানীয় তৃণমূল নেতারা৷ রাজ্যজুড়ে শাসকদলের একচেটিয়া আধিপত্য তৈরি হলেও , উত্তরবঙ্গে দলের সংগঠন তেমন মজবুত নয়৷ সেই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে ক্রমশ শক্তি বাড়াচ্ছে বিজেপি৷ অসমে বিজেপি ক্ষমতায় আসার পর লগোয়া বাংলার জেলা কোচবিহার , জলপাইগুড়ি , সদ্য গঠিত আলিপুরদুয়ারে গেরুয়া বাহিনীর দাপট বাড়ছে৷ বাংলাদেশি উদ্বাস্ত্ত ছাড়াও আদিবাসীদের মধ্যে বিজেপির প্রভাব বাড়ছে৷ তাদের বাড়া ভাতে ছাই দিতে মমতাও তাই বিজেপির কেন্দ্রকেই বেছে নিলেন৷

তৃণমূলের মাদারিহাট -বীরপাড়া ব্লক সভাপতি পঙ্কজ দাস বলেন , ‘এটা অস্বীকার করার উপায় নেই যে পঞ্চায়েত সমিতি ও জেলা পরিষদের মাধ্যমে এত উন্নয়ন করা সত্ত্বেও এই এলাকায় বিজেপিকে ঠেকাতে আমরা হিমশিম খাচ্ছি৷ আমরাও রাজনৈতিক মোকাবিলার জন্য প্রস্ত্তত হচ্ছি৷ আশা করছি , পরবর্তী পঞ্চায়েত নির্বাচনে বিজেপিকে মোক্ষম জবাব দিতে পারব৷ ’ তৃণমূলের আলিপুরদুয়ার জেলা সভাপতি মোহন শর্মা অবশ্য বলেন , ‘বিজেপির জন্যই মুখ্যমন্ত্রী সভাস্থল বদল করেছেন বলে যে প্রচার করা হচ্ছে , তা বিরোধীদের কাজ৷ আমাদের মুখমন্ত্রী ভেবে -চিন্তে পদক্ষেপ করছেন৷ ’উত্তরবঙ্গে ভোট ব্যাঙ্ক অটুট রাখতে ইতিমধ্যে একাধিক পদক্ষেপ করেছেন মমতা৷ জলপাইগুড়ি এবং আলিপুরদুয়ার জেলায় আদিবাসীদের কাছে টানতে সম্প্রতি পাহাড় ও সমতলের জন্য দু’টি পৃথক আদিবাসী উন্নয়ন পর্ষদ গঠন করেছেন৷ বন্ধ চা -বাগানের শ্রমিকদের জন্য ১০০ কোটির তহবিল গড়েছে সরকার৷ কর্মচ্যুত চা -শ্রমিকদের চাল পৌঁছে দেওয়ার পরিকল্পনা নিয়েছে সরকার৷ কিন্ত্ত বীরপাড়াকে কেন্দ্র করে যে চা -বলয় , সেখানেই বিজেপি প্রভাব অস্বীকার করার মতো জায়গা আর নেই

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  • অমিত -মমতার সফরে উত্তাপ বাড়ছে উত্তরে

    অমিত -মমতার সফরে উত্তাপ বাড়ছে উত্তরে

    আচমকা মুখ্যমন্ত্রীর প্রশাসনিক সভার স্থান বদল হল আলিপুরদুয়ারে৷ সোমবার উত্তরবঙ্গে সফরে যাচ্ছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ ২৭…

    অধিক »
  • সুপ্রিম কোর্ট বারণ করা সত্ত্বেও আধার আবশ্যিক কেন? ভর্ৎসিত কেন্দ্র

    সুপ্রিম কোর্ট বারণ করা সত্ত্বেও আধার আবশ্যিক কেন? ভর্ৎসিত কেন্দ্র

    আধার কার্ড মামলায় ফের সুপ্রিম কোর্টের ভর্ৎসনার মুখে পড়ল কেন্দ্রীয় সরকার। আধার কার্ড করানো প্রত্যেক…

    অধিক »

বিজ্ঞাপন

সম্পাদকের পছন্দ